সুহৃদ শহীদুল্লাহ

 

Shuhrid-Shahidullah

ছবি: Peter Dietzel

 

(বাংলাদেশ)

 

 

 

মিল

 

দুঃস্বপ্ন দেখে যারা কাঁদে

আমি তাদের মতো নই

 

আমি তাদের কান্নার মতো

 

 

 

ইরেজার

 

সমুদ্রে ফেলে এসেছিলে যে স্মৃতিভার

নির্ভার তা মুছে গিয়েছিল

 

লোকে লোকে জানাজানি হয়েছিল খুব

বহুদিন পরে আবারো বেড়াতে এসে এক মা খুঁজে পেয়েছিলেন

তার হারানো মেয়ের ইরেজার

কতদিন আগে

কার মেয়ে

কেন সে হারিয়ে যাওয়ার আগে ফেলে গিয়েছিল প্রিয় ইরেজার

এই সমাচারে ডুবে গিয়েছিল সাময়িক ঝিনুক বাজার

তার নিচে বসেছিলে তুমি, সুর্যাস্তে রেখে এসেছিলে দাগ

 

আজ সেই দাগ তিনভাগ জলের দখলে

আর ইরেজার মুছে নিল একভাগ,

তোমাকেও, সমূলে

 

 

 

পরিচয়

 

পেটের ভিতরে তোমার গুঁজে দিচ্ছি নৃশংস পাখির পালক

ওইটুকু নিশানা আমার তুমি বয়ে নিয়ে যাও সংসারে

যেখানে জাতিস্মর কুকুর পাহারা  দেয় নাবালিকা গর্ভবতীদের

 

ওদের যেকোন একজন আমার

 

ওদের যেকোনো একজনের নাম পাখি

আমি তার গোপন পালক

 

 

পাঠ

 

রাত্রির চিৎকারে কেঁপে ওঠে পাখির শৈশব

গৃহযুদ্ধের শেষে এই দেশে বৃষ্টি নামে

ধুয়ে যায় ব্রেইলপাঠ্য সহায়িকা

একজন অন্ধমানুষ,

একা,

আরেকজন অন্ধমানুষের খোঁজে হেঁটে হেঁটে

খুঁজে পায় নিজস্ব সমাধিলিপিকা– পড়ে ঠোঁট ছুঁয়ে ছুঁয়ে

 

উড়ে আসে পাখির পালক, হাওয়াপরিখা ধরে,

রাত্রির চিৎকারে কাঁপে ভিজে-ওঠা শান্তি পতাকা

 

 

 

জঙ্গলকাহিনি

 

তোমার স্তনে হাত দিলে শুনি বাঘিনীর কান্নার আওয়াজ

 

নিজেকে মনে হয় নবীন পর্যটক; এসেছি অরক্ষিত বনে

অমীমাংসীত সীমান্ত অঞ্চলে;

কাটাতাঁরে ঝুলিয়ে রেখে গুলিবিদ্ধ সহোদর–

এসেছি বুঝে নিতে

লাশ টেনে নেবার রোডম্যাপ

 

এসে তোমার স্তনে হাত রেখে ঘুমিয়ে পড়েছি

আর তোমার ভেতরে ঘুমিয়ে পড়েছে গুলিবিদ্ধ বোন

একেবারে

আর ওর ঘুমের ভেতরে জেগে উঠছে সৌরজঙ্গল

মাথা তুলছে গাছ মাথা তুলছে পশু ও পাখি

 

আর আমি ক্রমাগত মাথা নত করতে করতে

ঢুকে পড়ছি পাকে– জলমগ্ন রক্তাক্ত জঙ্গলে–

তোমার স্তনে

আঙ্গুলের ছাপচিহ্ন দিয়ে,

তোমাকে সাক্ষী রেখে, মাতৃঘাতিনী

 

 

 

বাঘ

 

তুমি বাঘ তবু কেন জানি মনে হয় বাঘের অনুলিপি

শুয়ে আছো A4 সাইজ পেপারে; সস্তা কালিতে লেপ্টে আছে

তোমার আত্মা

কখনো জাগবে না;

পাড়ার ছেলেরা এসে বিরক্ত করে তোমার স্বপ্নে আর

পাড়ার মেয়েরা- যারা তোমাকে ভালোবেসেছিল দুর থেকে-

তারা কেউ কেউ এখন বে-পাড়ায়

আজ শুধু অপেক্ষা তাদের- যদি কোনো বাঘ অথবা

বাঘের বাচ্চা

ওদের ফিরিয়ে আনে ঘরে

 

দুর থেকে শুনো ওদের সান্ধ্য প্রার্থনা গানে গানে-

তোমার স্বপ্নে

কখনো জাগবে না তুমি

 

তুমি বাঘ তবু কেন জানি মনে হয় বাঘের অনুলিপি

ঘুমিয়ে আছে A4 সাইজ পেপারে-  অপর পৃষ্ঠায় যার

ছাপা হচ্ছে পশুজরীপের খসড়া প্রতিবেদন

 

 

 

হাঁটা

 

কোনো কোনো মানুষ হাঁটে

নিজ নিজ কফিন পিঠে নিয়ে

 

কোনো কোনো মানুষ হাঁটে

ঐসব মানুষ আর কফিনের ছায়ায় ছায়ায়

 

বাকী সব মানুষ আবার হাঁটতে বেরোবে বলে

একটু জিরিয়ে নিতে

এখনো কবরে ঘুমায়
 

 

 

 

 

 

 

 

____________________________________________

 

সুহৃদ শহীদুল্লাহ

নতুন সহস্রাব্দের বাংলা কবিতায় অন্যতম শক্তিশালী ও মৌলিক কণ্ঠস্বর সুহৃদ শহীদুল্লাহ  সম্প্রতি আমন্ত্রিত হয়েছেন প্যারিস থেকে প্রকাশিত পত্রিকা La Traductière -য়ে সহসম্পাদক হিসেবে কাজ করার জন্য ।  তাঁর জন্ম ১৯৭৫ সালে বাংলাদেশের কুষ্টিয়া জেলায়। এ-পর্যন্ত তাঁর চারটি কবিতার বই প্রকাশিত হয়েছে। প্রথম বই “ঈশ্বরের অটোবায়োগ্রাফিÓ প্রকাশিত হয়েছিল ২০০১ সালে ভারতের কোলকাতা থেকে। তাঁর কবিতা এবং অন্যান্য লেখালেখি সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে তাঁর সার্বিক লড়াইয়ের অংশ। তাঁর যৌথ সম্পাদনায় প্রকাশিত লিটল ম্যাগাজিন, Òশিরদাঁড়া” ইতোমধ্যে তরুণতর এবং আভাঁ-গার্দ কবি-সাহিত্যিকদের গুরুত্বপূর্ণ প্ল্যাটফর্ম হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। তিনি বিশ্বসাহিত্য থেকে নিয়মিত বাংলায় অনুবাদ করে থাকেন। অতিসম্প্রতি তিনি রুমানিয়ার নব্বই দশকের কবিদের কবিতাসহ ইউরোপের অন্যান্য দেশের সমসাময়িক কবিদের কবিতা অনুবাদ করে প্রকাশ করেছেন। এ-ক্ষেত্রে তাঁর অন্যতম প্রধান কাজ রাইনার মারিয়া রিলকের Òতরুণ কবির প্রতি চিঠিÓ বাংলায় অনুবাদ ও প্রকাশ করা।

বর্তমানে তিনি জার্মান কবি ও লেখক ইভা-মারিয়া বার্গ এবং সিগলিন্ড ব্রুন এর সাথে তাঁর কবিতার দ্বি-ভাষী (ইংরেজি, জার্মান) বইয়ের জন্য কাজ করছেন। একইভাবে, ফরাসি কবি মেরিলিন বার্তোনসিনি সুহৃদের কবিতা ফরাসিতে অনুবাদ করছেন অপর একটি দ্বিভাষী (ইংরেজি, ফরাসি) বইয়ের জন্য।

সুহৃদ ২০১৪ সালে প্যারিস আন্তর্জাতিক কবিতা উৎসবে আমন্ত্রিত হয়ে তাঁর কবিতা উপস্থাপন করেছেন। উৎসব উপলক্ষে La Traductière  তারঁ কবিতা প্রকাশিত হয়। ফরাসি ওয়েব জার্নাল http://www.recoursaupoeme.fr সম্প্রতি তাঁর কবিতা বাংলা, ইংরেজি এবং ফরাসি ভাষায় প্রকাশ করেছে । বর্তমানে সুহৃদ প্রকাশের জন্য অনুবাদ করছেন, ফরাসি কবি লিন্ডা মারিয়া বারোস এর  গীয়ম এপোলোনিয়র পুরষ্কারপ্রাপ্ত কবিতার বই Òরেজর ব্লেডে তৈরি বাড়িÓ। পাশাপাশি একটি পরিকল্পিত সংকলেন জন্য অনুবাদ করছেন ইভা-মারিয়া বার্গ এর কবিতা।

 

 

Articles similaires

Tags

Partager